বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সারদের কিছু সিকিউরিটি

Shortlink:

বর্তমানে আপনার ব্যাংক একাউন্ট এ বিদেশ থেকে টাকা আসলেই সেটা সন্দেহভাজন নজরদারী করা হচ্ছে, আর যদি ডলার আসে আমেরিকা থেকে তাহলে তীর আপানকেই টার্গেট করবে,

সিকিউরিট বাবদ যা সাথে রাখবেনঃ
১। আপওয়ার্ক অথবা যে কোন অনলাইন প্রফেশন প্রোফাইল এর প্রিন্ট কপি
২। ক্লায়েন্ট এর সাথে যদি NDA করা থাকে তার প্রিন্ট কপি
৩। ব্যাংক এ যে পরিমাণ ডলার অথবা টাকা আসবে সেটা Invoice আঁকারে লম্বা করে কাজের বিবরণ লিখে প্রিন্ট কপি,
৪। অবশ্যই সব প্রিন্ট কপি তে আপনার নাম এবং ব্যাংক এর নাম একই হতে হবে
৫। সব প্রিন্ট করে ফাইল করে আপনার ডেস্ক এর ডয়ারে রেখে দিন

যে সমস্যায় পরেছিলামঃ
১। ডলার ডূকা মাত্রই ব্যাংক একাউণ্ট লক (আমি জানতাম না)
২। অচেনা নাম্বার থেকে কল এসে আমার পরিচয় জানতে চাওয়া
৩। অচেনা নাম্বার থেকে কল এসে USA তে কে আছে জানতে চাওয়া
৪। টাকা তুলতে গিয়ে দেখি লক, ব্যাংক এ ফোন দিয়ে জানি, আমার একাউণ্ট নজরদারীতে,
৫। কোন ক্রাইম এর সাথে জড়িত সন্দেহভাজন করে আমার একাউন্ট লক করা হয়েছে

সমাধানঃ
প্রোফাইল, NDA, এবং Invoice প্রিন্ট করে জমা দিলাম সাথে বিস্থারিত ব্যখ্যা করেছি,

বিঃ দ্রঃ প্রয়োজনীয় তথ্য উপস্থাপন না করতে পাড়লে কি হবে তা আর বলার বাকী রাখেনা

ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন নিরাপদে ফ্রিল্যান্সিং করুন

ধন্যবাদ

লেখক: পাবেল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Subscribe For Latest Updates

Signup for our newsletter and get notified when we publish new articles for free!